‘আমার জীবনে প্রথমবারের মতো এমন জন্মদিন পালন'- শাকিলা জাফর


গত ২৮ ফেব্রুয়ারি শাকিলার জন্মদিন ছিল,
জন্মদিনের সব থেকে বড় আয়োজন করেন তার স্বামী রাভি শর্মা। তিনি বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীততারকাদের কে গোপনে ডেকে এনে শাকিলাকে অন্যরকম এক সারপ্রাইজ দেয়।

শিবলী মহম্মদ, শামীম আরা নীপা, আনিসুল ইসলাম, ডলি ইকবাল, টুটলি রহমান, তপন চৌধুরী,আঁখি আলমগীর, দিনাত জাহান, শফিক তুহিন, রুমা, বেবী, রুনি, সস্ত্রীক ফয়েজ আহমেদসহ তাঁর ঘনিষ্ঠ আত্মীয়স্বজনের প্রায় সবাই সেখানে উপস্থিত ছিল।

ভেতরের ঘরে রাখা টেবিলে জন্মদিনের বিশাল কেক। চারপাশে ফুল ছড়ানো। আর
ওপরের ডেকে খাবারের সুব্যবস্থা। ঠিক সন্ধ্যা সাতটায় ঘটে গেল এই আয়োজনের শেষ দৃশ্য। রাভি শর্মার চিত্রনাট্য অনুযায়ী
শাকিলা স্মৃতিকে অভ্যর্থনা জানানো হলো কলাবতী রাগে করা পণ্ডিত রবিশঙ্করের কম্পোজিশন, ‘স্বাগতম’-এর সঙ্গে
কলকাতার একদল নৃত্যশিল্পীর পরিবেশনার মধ্য দিয়ে। এটির নির্দেশনায় ছিলেন কলকাতার নন্দিত নৃত্যপরিচালক সুকল্যাণ
ভট্টাচার্য। আনন্দঘন কেক কাটা পর্ব আর নাচের পর গান তো হতে হবেই। এলেন তপন চৌধুরী। কণ্ঠে ‘তুমি আমার প্রথম সকাল’,
তাঁর সঙ্গে কণ্ঠ মেলালেন শাকিলা স্মৃতি। এরপর এক এক করে দিনাত জাহান ও আঁখি আলমগীর—সবাই গাইলেন আরও কিছু গান।

কীভাবে এ রকম একটা পরিকল্পনা মাথায় এল—রাভির উদ্দেশে প্রশ্নটা ছিল সবার। তিনি বললেন, ‘আসলে শাকিলাকে যখন
জিজ্ঞেস করলাম, তোমার জন্মদিনটা বাইরে কোথাও সেলিব্রেট করি। ব্যাংকক, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর অনেক দেশের নামই বললাম। কিন্তু ও তখন বলল, চলো কলকাতা যাই।
কলকাতা শুনেই এই পরিকল্পনাটি আমার মাথায় এল।’ আনন্দমিশ্রিত কান্নায় শাকিলা জানালেন তাঁর অনুভূতি, ‘আমার জীবনে প্রথমবারের মতো এমন জন্মদিন পালন, যা আমার
জন্য হৃদয়ছোঁয়া অপ্রত্যাশিত চমক। আমি ভাষাহীন।’



EmoticonEmoticon