ছেলেদের ঈদ ফ্যাশন

ঈদ আসলে চোখে পড়ে চারিদিকে মেয়েদের ফ্যাশেনের বাহুল্যতা। তবে এ ক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই ছেলেরাও। ঈদের কয়েকদিন আগ থেকে তারা নিজেদের একটু পরিপাটি করে নেয়ার জন্য ভিড় করেন মেনজ্ পার্লার ও সেলুনগুলোতে। ছেলেদের ফ্যাশন হলো- পাঞ্জাবী, শার্ট, টি-শার্ট, প্যান্ট, সু, চুলের ফ্যাশন, হাতের ব্রেস লাইট ইত্যাদি। এছাড়া নানা রকমের সাজে নিয়ে আসে চেয়ারার লাব্যণতা। ঈদের দিন ছেলেদের প্রথম পছন্দ হলো পাঞ্জাবি। আর পাঞ্জাবির সঙ্গে পাজামা কিংবা জিন্স দুটোই মানানসই। ঈদের আগে সেলুনগুলোতে থাকে লম্বা লাইন। এক্সপার্ট সেলুনগুলোতে আগে থেকেই সিরিয়াল দিয়ে রাখতে হয় চুল কাটা ও শেভ করার জন্য। হেয়ার স্টাইল বা দাড়ি কামানোর স্টাইলটাও কিন্তু বয়স, পেশা, মুখের আকৃতি, সামাজিক অবস্থান ও চুলের ধরনের ওপর নির্ভর করে।

হেয়ার স্টাইল : – পুরুষের হেয়ার স্টাইলে আজকাল এসেছে নানা বৈচিত্র্য। আগের মতো গৎবাঁধা এক ছাঁটের বদলে ছেলেদের চুলে বর্তমানে ইমো কাট, লেয়ার কাট, স্টেপ কাট, হোয়াইট ওয়ালস কাট, ফেড কাট, লেয়ার স্পাইক, ক্ল্যাসিক কাট ইত্যাদি স্টাইল চলছে। টিক্কি কাট বা লিজার্ড টেল নামের হেয়ার স্টাইলটিও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ঈদের অন্তত কয়েকদিন আগেই চুল কাটার কাজটা সেরে রাখতে পারেন। যাদের চুল শুষ্ক তারা ঈদের আগে চুলে প্রোটিন ট্রিটমেন্ট করিয়ে নিতে পারেন। আর যারা খুশকির সমস্যা ভুগছেন তারা অয়েল ম্যাসাজ করে নিন। ঈদের দুই থেকে তিন দিন আগে ফেসিয়াল করে নিন। বেশি আগে শেভ না করে ঈদের আগে দিন করার চেষ্টা করুন। ঈদের দিন সকালে গোসল করে চুলগুলোকে জেল দিয়ে সেট করে নিন। সুগন্ধি লাগান। ঈদের দিন সকালে পাঞ্জাবি পরুন, সঙ্গে ফ্ল্যাট স্যান্ডেল পরে নিন।


পোশাক নির্বাচন: ঈদের দিনটা বেশ গরম থাকতে পারে এবার। আর তাই হালকা রঙের পোশাক পরে আরামে কাটিয়ে দিতে পারেন ঈদের সকালটা। এক্ষেত্রে বেছে নিতে পারে সাদা ঘিয়া, হালকা সবুজ, বাদামি, হালকা হলুদ ও নীলের মতো রংগুলো। অনেকে ক্যাজুয়াল পোশাকে ঈদ পালন করেন। তাদের জন্য এবার চলছে নিয়ন কালারের টি-শার্টের ট্রেন্ড। এর সঙ্গে পরতে পারেন রঙিন গ্যাভাডিন বা জিন্সের প্যান্ট। সঙ্গে পরুন রঙিন এক জোড়া জুতা বা চামড়ার ফ্ল্যাট স্যান্ডেল। ঈদে অফিসে যেতে হলে আপনি হালকা সুতি কাপড়ের ফতুয়া বা হাফ হাতা প্রিন্টের শার্ট বেছে নিতে পারেন। এছাড়া পাঞ্জাবীও পরে যেতে পারেন ঈদের দিনটায়। চশমার কারিশমা : আজকের ছেলেদের ঈদের আগে ও পরে চশমার কারিশাটা চোখে পড়ার মতো। বিভিন্ন মডেলের চশমা আপনার হাতের কাছের দোকানগুলোতে পেতে পারেন। সেখান থেকে খুব সহজে সংগ্রহ করতে পারেন।


EmoticonEmoticon