কলকাতায় আজীবন সম্মাননা পেলেন নায়করাজ

সিনেমা জগতে বিশেষ অবদানের জন্য আজীবন সম্মাননা পেলেন বাংলাদেশের প্রখ্যাত অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক। রবিবার সন্ধ্যায় কলকাতার নজরুল মঞ্চে আয়োজিত ১৬তম টেলিসিনে অ্যাওয়ার্ডে আজীবন সম্মাননা গ্রহণ করেন রাজ্জাক। তার হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন পশ্চিমবঙ্গের নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী ডা: শশী পাঁজা।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় বাংলা ছবির অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি, প্রখ্যাত অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিক, শুভাশিস ব্যানার্জি, শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়, ইন্দ্রানী দত্ত, অনামিকা সাহা প্রমুখ। রাজ্জাকের সঙ্গেই বাংলা ছবির আরেক প্রখ্যাত অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিককেও আজীবন সম্মাননায় ভূষিত করা হয়।

সম্মাননা গ্রহণের পর নায়করাজ রাজ্জাক বলেন, ‘শিল্পীদের কোনো জাত নেই, দেশ নেই। আজকে আমার ভাল লাগছে এই মঞ্চে দাঁড়িয়ে টেলি সিনে অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছি। এবং আমাকে আজীবন সম্মানা দেয়া হচ্ছে’।


পাশে দাঁড়ানো রঞ্জিত মল্লিককে উদ্দেশ্য করে নায়করাজ বলেন, ‘রঞ্জিত মল্লিক আমার অত্যন্ত প্রিয় একজন মানুষ। তার সঙ্গে আমি ছবি করেছি। এখানকার শিল্পীরাও অত্যন্ত ভালো, সকলের সঙ্গেই আমার ভালো সম্পর্ক রয়েছে’।

এর আগে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী গৌতম দেব, অভিনেত্রী ও তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়, অভিনেতা শুভাশিস ব্যানার্জি প্রমুখ।

দুই বাংলার চলচ্চিত্রে জনপ্রিয়তার কারণে নুসরাত ফারিয়া-কেও এদিন পুরস্কৃত করা হয়। সংগীতে বাংলাদেশ থেকে পুরস্কার পান ব্যান্ডশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু, কন্ঠশিল্পী কনা ও হাবিব ওয়াহিদ। এছাড়াও কলকাতার টেলি জগতের বেশ কয়েকজন শিল্পীকেও এদিন পুরস্কৃত করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০০০ সাল থেকে চলচ্চিত্র জগতে বিশেষ অবদানের জন্য কলকাতার টেলিভিশন এবং সিনেমার কুশীলবদের সম্মাননা জানিয়ে আসছে কলকাতার টেলি সিনে সোসাইটি।


EmoticonEmoticon