'বস টু ও নবাব'কে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন রাজনীতির নির্মাতা



যৌথ প্রযোজনার ছবি 'বস টু' ও নবাবকে প্রকাশ্য চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন রাজনীতি ছবির নির্মাতা এনএস বুলবুল বিশ্বাস। নিজের ছবিকে যৌথ প্রযোজনার ছবির চেয়ে গুণগত মান অনেক বেশি উন্নত ও মৌলিক গল্পের ছবি উল্লেখ করে জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধারকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, 'যদি আপনার সিনেমা নিয়ে আপনার এতই কনফিডেন্ট থাকে, তাহলে আসুন মুক্ত বাজারে। আপনার দুটো সিনেমা আর আমার রাজনীতি নিয়ে একই প্লাটফর্মে বসি। '

জাজ মাল্টিমিডিয়ার ফেসবুক পেইজের এক পোস্টের কথা উল্লেখ করে এই নির্মাতা নিজের ফেসবুক পেইজে লিখেছেন, 'জাজ মাল্টি মিডিয়া তাদের পেইজে গত বছরের উদাহরণ টেনে বলেছেন, তাদের দুই ছবির বাইরে অন্য ছবি কোন হল মালিক নিলে, সেই হল মালিক ব্যাবসায়িক ক্ষতির মুখে পড়বেন। আব্দুল আজিজ সাহেব সরাসরি চোখে আঙ্গুল দিয়ে বলেছেন, হল মালিকরা আমাদের দুই ছবি বাদে অন্য ছবি নেবেন না। কিন্তু আমার মতো একজন নবীন নির্মাতার সরল মনের সরল প্রশ্ন, হল মালিকরা কোন ছবি নেবেন, কি না নেবেন সেটা বলার বা নির্ধারণ করার আপনি কে? তাদের নেতা? নাকি ত্রাণকর্তা?'

বুলবুল বলেন, তাহলে নেতাগিরি কে বা কারা করছেন? আপনি না আপনি ছাড়া পুরা ইন্ডাস্ট্রি?
বুলবুল আরো উল্লেখ করেন, আপনাদের ভাষ্যমতে দুই ছবি দিয়ে শতাধিক হল ইতোমধ্যে বুকিং করে ফেলেছেন। কিন্তু একটা হিসেব মেলে না, ছবির কন্টেন্ট না দেখে কিভাবে হল মালিকরা আপনার ছবি নিতে আগ্রহী হলেন। কেননা, এটা সবাই জানে, হল মালিক বা বুকিং এজেন্টরা কন্টেন্ট দেখে সিদ্ধান্ত নেন যে তারা ছবিটা নেবেন কি না! এবং এও সবাই জানেন আপনার ছবি দুটো তার কন্টেন্ট দেখানোর উপযোগী হয়েছে কিছুদিন পূর্বে মাত্র। তাহলে কিসের ভয়ে বা কোন অজানা কারণে ছবির ছিটেফোঁটা না দেখেই হল মালিকরা আপনার ছবি নিতে আগ্রহী বা বাধ্য হয়। এরপরও কি বলবেন আপনি বাদে ইন্ডাস্ট্রির অন্যরা নেতাগিরি করছেন।

উল্লেখ্য, শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসকে নিয়ে বুলবুল বিশ্বাস নির্মাণ করেছেন 'রাজনীতি' যা এই ঈদে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। অন্যদিকে জাজ মাল্টিমিডিয়া যৌথ প্রযোজনার ছবি বস টু ও নবাবকে মুক্তির তালিকায় পড়েছে। ইতোমধ্যে 'বস টু' ছবিটি অনিয়মের বিতর্কে জড়িয়েছে।


EmoticonEmoticon