এ যেন নতুন সালমান শাহ ( ভিডিও)




দেশীয় চলচ্চিত্রের আকাশে ক্ষণজন্মা নক্ষত্র সালমান শাহ । আজ অবধি সিনেমাপ্রেমীদের অন্তরে দীর্ঘশ্বাসের সঙ্গে উচ্চারিত হয় সালমান শাহের নাম। ইদানিং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেইসবুক এবং ইউটিউবে কিছুটা সালমান শাহ এর মতো দেখতে বেশ কিছু ভিডিও চোখে পরে "তারকানিউজের" সাথে কথা হয়  আলোচিত সেই ব্যক্তির সাথে  যার আসল নাম তাওহীদ খান।

 কেমন আছেন?

:আলহামদুলিল্লাহ বেশ ভাল আছি,আপনি?

জী ,ভালো। আপনার পরিচয় জানতে পারি কি?

:জী  অবশ্যই,আমি তাওহীদ,বর্তমানে নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে একা থাকি,আমার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর পাপুয়া গ্রামে।আমরা তিন ভাই ও এক বোন। কয়েক বছর আগে আমার বাবা না ফেরার দেশে চলে যান।  পরিবারের বড় ছেলে হিসেবে হাল ধরতে হয় আমাকেই,তাই পারি জমায় আমেরিকায়। এখানে আমি একটা কোম্পানিতে চাকুরী করছি। 

আচ্ছা এত নায়ক থাকতে আপনি সালমান শাহকে কেন অনুসরন এবং অনুকরণ করেন বা কেন তার মতো  হতে চান?

: আসলে খুব বেলায় যখন সালমান শাহ এর ছবি দেখতাম তখন থেকে উনাকে খুব ভালো লাগতো,আর আমার মা বলতো আমি যখন উনাকে গুন্ডারা মারতো তখন নাকি আমি কান্না করতাম। আর এ প্রজন্মের কাছে এখনো সালমান শাহ  অনেক জনপ্রিয়। 


        

আপনি কি আগে অভিনয় করেছেন?

: না,আমি আগে কখনো অভিনয় বা মডেলিং করেনি। ভাল লাগা থেকেই সালমান শাহ  এর লুকে ভিডিও বানাই।

বাংলা ছবিতে কাজ করার কোন ইচ্ছা আছে কি?

:আসলে পরিবারের বড় ছেলে হিসেবে আমার দায়িত্বটা অনেক বেশি,আমি এসব নিয়ে ভাবি না আমার নির্দির্ষ্ট উদ্দেশ্য আছে। আর যদি কোনদিন  এরকম কোন সুযোগ পায় তাহলে অবশ্যই কাজ করবো।

ফেইসবুকে কেমন সারা পাচ্ছেন?

:ফেইসবুকে অনেকেই ম্যাসেজ দিচ্ছে,আর এত এত ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট যা আমি একসেপ্ট করতে পারছিনা। সালমান শাহ এর লুকে বেশ কিছু ভিডিও ফেইসবুকে আপলোড দিয়েছিলাম অনেকেই  বলছে ভাল হয়েছে।

ধন্যবাদ আপনার সাথে কথা বলে ভাল লাগলো।

:আপনাকেও ধন্যবাদ।


             

উল্লেখ্য : ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর অসংখ্য ভক্তকে কাঁদিয়ে অনন্তলোকে পাড়ি জমান। ভাগ্যের ফেরে একই মাসে তার জন্ম ও মৃত্যু। সালমান শাহ ১৯৭১ সালে সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। নায়ক সালমান শাহ অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে ১৯৯৩ সালে মুক্তি পায় কেয়ামত থেকে কেয়ামত, দেন মোহর, তোমাকে চাই।

১৯৯৪ সালে মুক্তি পায় বিক্ষোভ ও আনন্দ অশ্রু, চাওয়া থেকে পাওয়া, বিচার হবে। ১৯৯৫ সালে মুক্তি পায় জীবন সংসার, মহা মিলন, স্বপ্নের পৃথিবী, স্বপ্নের ঠিকানা, এই ঘর এই সংসার।

১৯৯৬ সালে মুক্তি পায় কন্যাদান, মায়ের অধিকার, প্রেমযুদ্ধ, সত্যের মৃত্যু নাই, সুজন সাথী, স্বপ্নের নায়ক, তুমি আমার প্রভৃতি। ১৯৯৭ সালে মুক্তি পায় বুকের ভেতর আগুন ও প্রেম পিয়াসী চলচ্চিত্র।


EmoticonEmoticon