তারকাদের প্রতিদিনের লাইফ স্টাইল

‘কোরআন-গীতা-বাইবেল পড়েছি, ভেদাভেদ মানি নাঃ নুশরাত

টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত। বর্তমান সময়ে অভিনয় নিয়ে নয়, আলোচনায় আছেন রাজনীতি নিয়ে। ভারতের লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যের পাঁচটি আসনে পাঁচজন তারকা প্রার্থী দিয়েছে। এর মধ্যে দুজন একেবারে নতুন। নুসরাত জাহান ও মিমি চক্রবর্তী। এর মধ্যে নির্বাচনে বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকেই লড়ছেন টলিউডের ব্যস্ততম অভিনেত্রী নুসরাত।

বিরোধীদের অভিযোগ, গ্ল্যামারকে হাতিয়ার করেই নাকি একটি লোকসভা আসন নিজেদের ঝুলিতে রাখতে চেয়েছে তৃণমূল। সমালোচকদের এই টিপ্পুনির কড়া জবাব দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনীতির ময়দানে একেবারে আনকোরা হওয়া সত্ত্বেও শুধুমাত্র ধর্মনিরপেক্ষতার জন্য নুসরতকে ভোটযুদ্ধে লড়াই করানোর চিন্তাভাবনা বলেই জানিয়েছিলেন তিনি। দলনেত্রীর দাবি যে একেবারেই ভিত্তিহীন নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করে তা স্পষ্ট করে জানান দিলেন তৃণমূলের এই তারকা প্রার্থী।

বৃহস্পতিবার কচুয়াধামে লোকনাথের মন্দিরে পূজা দেন তিনি। পরে ওই ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন তিনি। নুসরাত লিখেছেন, ‘বসিরহাট কচুয়া বাবা লোকনাথের শান্তির ধামে। ঈশ্বর এক ও অদ্বিতীয়। আমি নুসরাত জাহান। মুসলিম পরিবারের মেয়ে। আমি ধর্মের ভেদাভেদ মানি না। আমি যেমন কোরআন পড়েছি। তেমন গীতা ও বাইবেল পড়েছি। কোথাও ধর্মের ভেদাভেদ ও হানাহানির কথা বলেনি।’

বৃহস্পতিবার একেবারে ভিন্ন মেজাজে জনসংযোগ করেন তারকা প্রার্থী নুসোত। হাড়োয়ার অলিগলিতে ঘুরতে ঘুরতে গ্রামের দস্যি কিশোরীর মতো আচরণ করতেও দেখা যায় এই অভিনেত্রীকে। এ সময় কখনও কোলে তুলে নেন ছাগলছানা।

তবে এত কিছুর পরেও স্থানীয়দের সমস্যার কথা শুনতেও ভোলেননি নুসরাত। জিতলে পারলে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন তিনি।

আরো পড়ুন- বাগদান পর্বও সেরে ফেলেছেন শ্রাবন্তী-রোশন, তাদের বিয়ের প্রথম ছবি

আরও একবার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন বাংলা সিনে জগতের জনপ্রিয় তারকা শ্রাবন্তী।

শোনা যাচ্ছে এবার তৃতীয়বারের মতো বিয়ে করছেন তিনি। আর সব প্রস্তুতি শেষের পথে। গত বছর কৃষণ ব্রজের সঙ্গে ডিভোর্স হয় তার। এরপরেই টলি অভিনেত্রী শ্রাবন্তীর সঙ্গে ধীরে ধীরে সম্পর্ক গড়ে ওঠে রোশন সিং ওরফে মন্টির। তার সঙ্গে এবার চারহাত এক করছেন বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় এই তারকা।

জানা গেছে, ইতিমধ্যে বাগদান পর্বও সেরে ফেলেছেন তারা। একেবারে গোপনে পয়লা বৈশাখের দিনেই তপসিয়ার এক বিলাসবহুল হোটেলে বাগদান পর্ব সারেন। এই অনুষ্ঠানে শুধুমাত্র শ্রাবন্তীর পারিবারিক বন্ধুরাই উপস্থিত ছিলেন। তাছাড়া ইতিমধ্যেই তাদের বাগদানের ছবি ভেসে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

পাত্র রোশন সিংহ পেশায় একটি এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু সুপারভাইজার। পার্ক সার্কাস অঞ্চলের এক পাঞ্জাবি পরিবারের ছেলে রোশন।

বিয়ের কাজ সেরে আগামী সপ্তাহের মধ্যেই কলকাতায় ফিরবেন শ্রাবন্তী-রোশন।

শ্রাবন্তীর বিয়েতে মত রয়েছে তার ছেলে ঝিনুকের। কারণ শ্রাবন্তী বলেছেন ছেলের অমতে বিয়ে করবেন না তিনি।

২০০৩ সালে পরিচালক রাজীব বিশ্বাসের সঙ্গে শ্রাবন্তীর প্রথম বিয়ে হয়। সে সময় শোনা যায়, রাজীব নানাভাবে নির্যাতন করতেন শ্রাবন্তীকে। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কও ছিল রাজীবের। সেই কারণেই বিচ্ছেদ হয়। ওই সংসারে ঝিনুক নামে শ্রাবন্তীর একটি ছেলে রয়েছে। তবে মায়ের সঙ্গেই থাকে ছেলে।

রাজীবের সঙ্গে বিচ্ছেদের পরে শ্রাবন্তীর সম্পর্ক হয় মডেল কৃষণ ব্রজের সঙ্গে। মহাসমারোহে বিয়েও করেন তারা। কিন্তু বিয়ের কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হয় মনোমালিন্য। এরপর গত জানুয়ারিতে কৃষণের সঙ্গে বিচ্ছেদ চুড়ান্ত হয়ে যায় শ্রাবন্তীর। তার পরেই নায়িকার সঙ্গে জড়িয়ে যায় রোশনের নাম।

আপনার পছন্দ হতে পারে

Comments are closed.