তারকাদের প্রতিদিনের লাইফ স্টাইল

রাস্তার ছেলে সেই শাহরুখ খানই আজ বিশ্বের দ্বিতীয় ধনী অভিনেতা

শাহরুখ খানকে সবাই একজন বড় অভিনেতা হিসেবে চেনেন। কিন্তু শাহরুখ খানকে কি চেনেন যিনি অল্প অল্প করে ক্ষুদ্র ও নগন্য একজন মানুষ থেকে আজকের কিং খান হয়ে উঠেছেন?শাহরুখ খান শৈশবে বাবা-মায়ের সাথে দিল্লির একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। স্কুলে শাহরুখ পড়াশোনায় যেমন দুর্দান্ত ছিলেন, তেমনি উজ্জ্বল ছিলেন হকি ও ফুটবলে। এই দুই খেলায় শাহরুখ ছিলেন অনবদ্য। হয়তো সেই ছাপটাই পাওয়া গেছে ‘চাক দে ইন্ডিয়ায়।’ কলেজ জীবনেই শাহরুখের মাথায় অভিনয়ের ভুত চেপে। এমন জোরালো ভাবেই চাপে যে মাস্টার্সের মাঝপথেই তিনি ডিগ্রি ছেড়ে থিয়েটারে নামেন। কিন্তু যার ভাগ্যের লিখন খারাপ তার সবদিক থেকেই যেন ‘খারাবি’ আসতে থাকে। সেই সময় তার বাবা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তার কিছুদিন পরে মা-ও পৃথিবী ছেড়ে বিদায় নেন। অভাগা যেদিকে চায় সাগর শুকায়ে যায়।শাহরুখ খান দারুণ অর্থ সংকটে পড়েন। যার ফলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপস্থাপনের কাজ করেন। যেখানে তিনি পেতেন মাত্র ৫০ রুপি। শাহরুখ বলেন, ‘ সিনেমায় অভিনয় করার লক্ষ্য নিয়ে যখন আমি মুম্বাইয়ে আসি তখন আমার থাকার জায়গা নেই, খাবার নেই কোনো টাকাপয়সা নেই।’ এসময় তিনি টিভি সিরিয়ালের ছোট ছোট চরিত্রে কাজ করা শুরু করেন। শাহরুখের নিকট তখন এটাই অনেক।

শাহরুখ ‘কাভি হা, কাভি না’ নামের একটি সিনেমায় প্রথমবারের মতো কাজ করেন এবং সেখান থেকে ২৫ হাজার রুপি পান। নিজের ছবি মুক্তির দিন নিজেই ছবির টিকেট ক্রয় করেন। সে সময়ও তিনি মুম্বাইয়ের বাসস্ট্যান্ড ও সমুদ্র সৈকতের ধারে ঘুমাতেন।কিন্তু ১৯৯৩ সালটা শাহরুখের শুধু ক্যারিয়ারই ঘুরিয়ে দেয় না, বলতে গেলে পুরো লাইফটাই পালটে দেয়। ৫ বছরের সংগ্রামী জীবনের পর মুক্তি পায় ছবি ‘দিওয়ানা।’ এই ছবিতে দিব্যা ভারতীর বিপরীতে ঋষি কাপুরের সাথে প্যারালাল চরিত্রে অভিনয় করেন শাহরুখ। ছবি শুধু শাহরুখের কারণেই ‘সুপার ডুপার বামপার’ হিট হয়ে যায়। এই ছবির প্রতিটি গান শুধু ভারত নয় গোটা উপমহাদেশ জুড়ে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে যায়। ১৯৯৩ সালের পরেও দীর্ঘ সময় জুড়ে ছিল ‘দিওয়ানা’ উন্মাদনা। এই ছবির মাধ্যমেই তিনি সেরা অভিষেকের পুরস্কার জিতে নেন। শাহরুখ বলেন, আমি যতটা না সৃজনশীল অভিনয়ের জন্য ছবিতে সাইন করেছি তারচেয়ে বেশি প্রয়োজন ছিল আমার অভাব ঘোচানো। এরপরের ঘটনা সবারই জানা। আজ শাহরুখ খান শুধু বলিউডের কিং খানই নন, তিনি বিশ্বের দ্বিতীয় সবচেয়ে ধনী অভিনেতা। আরও পড়ুন- চা-কফি নয়, সকালে ঘুম থেকে উঠে যে ৫টি খাবার খাবেন—–সকালে ঘুম থেকে উঠেই চা বা কফি খেতে অভ্যস্ত না এমন বাঙালী খুব কমই আছে। প্রায় সকলেই ঘুম থেকে উঠে সকালে চা নাহলে কফি খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু এর ফলে তার পরে সারাদিন ক্লান্তি বোধ করেন, ঘুম পায় অসময়ে, কলেজের ক্লাসে বা অফিসের মিটিং-এ মন বসে না। কিন্তু দৈনন্দিন কাজের সময়ে ঘুম পেলে তো সেটা মস্ত বড় সমস্যা, আসুন জেনে নেয়া এর থেকে মুক্তির উপায়। এটি পড়ুয়াদের ক্ষেত্রে বা যারা রোজ অফিসে যায় তাদের জন্য খুব সমস্যার ব্যাপার। সারাদিন ক্লান্তি বা ঘুম পাওয়া কাজের ক্ষেত্রে

অনেক বাদার সৃষ্টি করে। তাই আজ আপনাদের এই সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় বলবো। সারা রাত খালি পেটে থাকার পর সকালে দুধ ও চিনি দিয়ে চা-কফি খেলে সেটি শরীরে গিয়ে অ্যাসিড তৈরী করে। ফলে শরীর অসুস্থ হতে পারে। খিদে মরে যায়, খেতে ইচ্ছা করেনা। এর ফলে সারাদিন খাওয়ার রুচি থাকেনা।আমেরিকার ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশন তাদের একটি গবেষণা থেকে জানাচ্ছে, সকালে আপনি কি খাবার খাচ্ছেন তার ওপর নির্ভর করছে আপনার সারাদিন কেমন কাটবে? ডাক্তাররা বলেন আপনি সকালের খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন এই ৫টি খাবার। তার জন্য আপনাকে চা-কফি খাওয়া বন্ধ করতে হবেনা। আপনি চা-কফি খান তার সঙ্গে রাখুন এই খাবারগুলি। ১। আপেল : আপেল সকালে খাওয়ার জন্য খুব উপকারী। প্রতিটা আপেলে ১৩ গ্রাম করে শর্করা থাকে। সকালে একটি করে আপেল খেলে সব কাজে মনোযোগ আসে। এছাড়াও প্রবাদ আছে এই যে প্রতিদিন একটি করে আপেল খেলে ডাক্তারের চৌকাঠ মাড়াতে হয়না।২। ডিম : ডিম খুব উপকারী খাদ্য। ডিমে ওমেগা ৩ ও প্রোটিন থাকে। এই প্রোটিন শরীরে এনার্জি বাড়ায়। আপনি রোজ আপনার সকালের খাবার তালিকায় রাখতে পারেন একটি করে

ডিম। আপনি সিদ্ধ, পোচ, অমলেট যেভাবে খুশি সেভাবে খেতে পারেন।৩। মৌসম্বি : মৌসম্বিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। সকালে ভিটামিন সি শরীরে প্রবেশ করলে সারাদিন আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। সঙ্গে আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে। কাজেই ঘুম থেকে উঠে সবার আগেই খেয়ে নিন মৌসম্বির রস। ৪। মধু :আপনি সকালে উঠে খেতে পারেন মধু। মধু আপেলের মতো শর্করাতে পরিপূর্ন। তাছাড়া মধু শীতে ঠান্ডার হাত থেকে রক্ষা করে। সকালে উঠে খেকে পারেন কয়েক চামচ মধু।৫। ওটমিল : ওটস জিনিসটি এখনো বাঙালীরা খেতে খুব একটা অভ্যস্ত নয়। তবে এই খাবারে আছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার। এই খাবার খেলে শরীরে মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায়। অনেকক্ষণ পেট ভর্তি থাকে।তাহলে আজ থেকেই বদলে ফেলুন আপনার খাদ্য তালিকা। দেখুন কত সুন্দর আপনার দিন কাটবে।

আপনার পছন্দ হতে পারে

Comments are closed.