0


সঙ্গীতশিল্পী হাবিব ওয়াহিদের সাংসারের টানাপোড়নের খবর বেশ আগে থেকে শোনা যাচ্ছিল। তবে এবার আসলো পুরোপুরি বিচ্ছেদের সংবাদ। দ্বিতীয় স্ত্রী রেহানের সঙ্গে হাবিবের আনুষ্ঠানিক ডিভোর্স হয়ে গেছে বলে জানা গেছে। রবিবার সকাল থেকে বেশকিছু গণমাধ্যমে বিচ্ছেদের খবরটি বেশ ফলাওভাবে প্রকাশিত হয়েছে।

জানা গেছে, গত ২৬ জানুয়ারি দুই পরিবারের সমঝোতায় ডিভোর্স হয়েছে। হাবিব তার ভেরিফাইড ফেইচবুক পেইজে জানান,

সম্পর্কের টানাপোড়ন থাকে এটাই স্বাভাবিক। তাদের ভিতর পারস্পারিক সম্পর্ক ও টানাপোড়নের কারনেই তারা দু 'জন আলাদা হয়।
তিনি আরো জানান,দুর্ভাগ্যক্রমে আমার এবং রেহান এর সমঝোতামূলক বিবাহ বিচ্ছেদ হয়. আসলে মানুষের পারস্পরিক সম্পর্কে টানাপোড়ন এর ঘটনা নতুন কিছু নয় এবং আমাদের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম কিছু নয়. বিগত ৫ বছরে আমরা একে অপরকে জানার সময় পাই এবং ক্রমে বুঝতে পারি যে আমাদের লাইফস্টাইল ভিন্ন এবং এক পর্যায়ে আমরা দুজনেই এটা উপলব্ধি করি যে আলাদা হয়ে যাওয়াটাই আমাদের দুই জনের উভয় শান্তিপূর্ণ জীবন যাপনের জন্য সবচাইতে উত্তম সমাধান.

তিনি আরো জানান,

আমাদের একটি পুত্র সন্তান আছে যার নাম আলীম ওয়াহিদ এবং অবশ্যই তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এবং সুন্দর মানসিক বিকাশ এর কথা সর্বাধিক গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করে আমি সবসময় চাইবো আমার ও রেহান এর মধ্যে সবসময় একটি পারস্পরিক সম্মানজনক ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় থাকুক. আমি সবাইকে বিনীত অনুরোধ করবো এই বিষয় টি স্বাভাবিক ভাবে গ্রহণ করার জন্যে কারণ দুঃখজনক হলেও মানুষের জীবনে এরকম ঘটনা ঘটতেই পারে.

উল্লেখ্য, ২০০৩ সালে লুবিয়ানাকে প্রথম বিয়ে করেন হাবিব, তবে কিছুদিন যেতে না যেতেই সেই সংসার ভেঙে যায়। এরপর ২০১১ সালের শেষদিকে পারিবারিক সিদ্ধান্তে হাবিব বিয়ে করেন রেহানকে।

এছাড়াও তিনি গনমাধ্যমকে এই বিষয় নিয়ে অতিরঞ্জন করতে ও অনুরোধ করেন। 

সম্প্রতি "প্রেমের নতুন নাম মিথ্যে নয়" শিরোনামে তার নতুন একটি গান মুক্তি পায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
Top