বই মেলায় শামসউজজোহার প্রথম উপন্যাস 'নয় নম্বর শান্তিকুঞ্জ'

 

অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে শামসউজজোহার উপন্যাস 'নয় নম্বর শান্তিকুঞ্জ' । বইটি বের হয়েছে শ্রাবণ প্রকাশনী থেকে।প্রকাশক রবীন আহসান। উপন্যাসটির প্রচ্ছদ এঁকেছেন শিল্পী মাসুক হেলাল। মূল্য ২৫০ টাকা।  স্টল নম্বর ৪১৫-৪১৭, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান। পাঠ, আলোচনা ও মতামতের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন লেখক শামসউজজোহার ।

 'শান্তিকুঞ্জ' একটি ছোট্ট দোতলা বাড়ির নাম। রাজধানীর কাছাকাছি কিন্তু গ্রামের মতো খোলামেলা ও নিরিবিলি পরিবেশ এ বাড়ির চারপাশে। মাঝবয়সী একজন কবি একাই বাস করেন বাড়িটিতে। ফেইসবুক আর নিজের ব্লগে প্রেমের কবিতা লিখে তরুণদের কাছে তুমুল জনপ্রিয় তিনি। সবাই চেনেন 'সূর্য ভাই' বলে। একটি পুরস্কার প্রাপ্তির মধ্য দিয়ে সবার সামনে আসেন। মিডিয়ায় আসেন। ঘোষণা দেন সত্য ঘটনা অবলম্বনে নতুন করে লেখার। বিপত্তি শুরু হয় সেই থেকে। সামনে আসতে থাকে তাঁর অতীত জীবন। প্রেমের কবিতার ছদ্মবেশে লুকিয়ে ছিল একজন রাজনৈতিক কর্মীর জীবন। সেই আড়াল ছেড়ে বাইরে আসতেই জীবনে দ্বিতীয়বার টার্গেটে পরিণত হন। তাঁকে যারা একদিন আক্রমণ করেও ছেড়ে দিয়েছিল, তারাই আবার সক্রিয় হয়। ঘটনার সময়কাল নব্বইয়ের গণঅভ্যুত্থানের পরের ২৫ বছর।  

উল্লেখ্যঃ  শামসউজজোহার জন্ম ২২ মাঘ ১৩৮৩ বঙ্গাব্দ, রাজশাহীর পুঠিয়ায়। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর। পেশায় লেখক ও ব্রডকাস্টার। গণশিল্পী ও বর্ণমালা সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত রেখেছেন নিজেকে। তাঁর প্রকাশিত বই ‘শহরের শেষবাড়ি’ (কবিতা), ‘পায়ে পায়ে রাজপথ’ (প্রবন্ধ), ‘ধুলোকে ধন্যবাদ’ (কবিতা), ‘শ্যামলীর ছবি’ (কথোপকথন), ‘হ্যালো মিস্টার জিরো ওয়ান টু’ (গল্প)। সম্পাদনা করেছেন ‘কবিতা কনসার্ট’ (আবৃত্তি সিরিজ), ‘মতিহার কবিতার’ (আবৃত্তি সংকলন) এবং ‘এইসব দিনরাত’ (সাহিত্য পত্রিকা) , 'বাবার পাঞ্জাবি' (গল্পগ্রন্থ ) ।।এছাড়াও প্রতিষ্ঠা করেছেন সংগঠন বর্ণমালা।


EmoticonEmoticon