0

আরেকজনের ফেসবুক পোস্টে কতগুলো লাইক পড়েছে, তা আর দেখতে পাবেন না। ইনস্টাগ্রামের এ পদ্ধতি অনুসরণ করে ব্যবহারকারীর পোস্টে লাইকের সংখ্যা লুকানোর পদ্ধতি প্রাথমিকভাবে অস্ট্রেলিয়ায় পরীক্ষা শুরু করেছে ফেসবুক। আজ শুক্রবার থেকে অস্ট্রেলিয়ার অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারী অন্যের পোস্টে লাইক বা প্রতিক্রিয়ার সংখ্যা দেখতে পাচ্ছেন না। খবর বিবিসির।

গত জুলাই মাস থেকে ফেসবুকের মালিকানাধীন ইনস্টাগ্রাম প্ল্যাটফর্মে বিতর্কিত এ পরিবর্তন আনা হয়। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, ইনস্টাগ্রামে লাইক লুকানোর পদ্ধতি পরীক্ষা করে তারা ইতিবাচক ফল পেয়েছে। তাই তারা ফেসবুকে এ পদ্ধতি চালু করবে।
ফেসবুক কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, ভিউ থেকে লাইক সরিয়ে দিলে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মধ্যে সামাজিক চাপ কমে। তবে যার পোস্ট তিনি কত লাইক পেলেন, তা গুনতে পারবেন। কিন্তু বাইরের কেউ তা দেখতে পাবেন না।

ফেসবুকের মুখপাত্র মিয়া গারলিক বলেছেন, লাইকের সংখ্যা কমিয়ে ফেলার ফলে মানুষ এখন মানসম্মত কনটেন্ট ও লাইক গোনার বদলে মানসম্মত যোগাযোগে আগ্রহী হবে।এ পদ্ধতি চালু করতে ফেসবুক মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও নিপীড়নবিরোধী বিভিন্ন গ্রুপের সঙ্গে আলোচনা করেছে। এ ছাড়া প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরাও এ ধরনের পরিবর্তনের কথা বলেছিলেন।এ মাসে শুরুর দিকে হংকং-ভিত্তিক এক সফটওয়্যার প্রকৌশলী এক ব্লগ পোস্টে ফেসবুকে এ পরিবর্তন আনার কথা বলেছিলেন।

এর আগে ইনস্টাগ্রাম অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ব্রাজিল, কানাডা, জাপান, ইতালি ও আয়ারল্যান্ডে পরীক্ষা চালিয়েছে। তবে এ-সংক্রান্ত তথ্য উন্মুক্ত করেনি।ফেসবুকের এ সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের বিভিন্ন প্রভাবশালী ব্যক্তি। তাঁরা বলছেন, ব্যবসার দিক বিবেচনায় লাইক দেখানোটা গুরুত্বপূর্ণ।এখন পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা লাইক লুকানোর পদ্ধতি স্থায়ীভাবে চালু হবে কি না, তা এখনো পরিষ্কারভাবে কিছু বলেনি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
Top