আমজাদ হোসেনের সম্মানে তিন দিন শুটিং বন্ধ


কিংবদন্তি চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেন না ফেরার দেশে পাড়ি দিয়েছেন শুক্রবার। তাকে হারিয়ে শোকে কাতর বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গন। প্রিয় নির্মাতার মৃত্যুতে তিন দিনের শোক ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। তিন দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে সব চলচ্চিত্রের শুটিং।

গতকাল বিএফডিসিতে চলছিল নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল পরিচালিত ‘জ্যাম’ ও মোহাম্মদ আসলাম পরিচালিত 'প্রতিশোধের আগুন' ছবি দুটির শুটিং। আমজাদ হোসেনর মৃত্যু সংবাদ জানার পর তারা শুটিং বন্ধ করে দেন। সোমবার পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সব চলচ্চিত্রের শুটিং। এদিকে শিল্পী সমিতির কার্যালয়ে উঠানো হয়েছে কালো পতাকা।

 বিষয়টি নিয়ে সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান বলেন, ‘আমজাদ হোসেন আমাদের সমিতির সদস্য নন। কিন্তু তিনি আমাদের পথ প্রদর্শক। তার হাত ধরেই এদেশের অনেক শিল্পী আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। তাই আমরা তার প্রতি সম্মান জানিয়ে সব কাজ স্থগিত করেছি।’

জায়েদ খান জানালেন, আগামীকাল ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল শিল্পী সমিতি। সেটিও স্থগিত করা হয়েছে।

চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন শুক্রবার (১৪ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা ৫৭ মিনিটে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রখ্যাত এই চলচ্চিত্রকারকে ২৭ নভেম্বর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসারত অবস্থায় মারা যান ৭৬ বছর বয়সী এই চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব।

আমজাদ হোসেনের শিষ্য নির্মাতা এস এ হক অলিক জানান, আমজাদ হোসেনের মরদেহ ঢাকায় আনার প্রক্রিয়া চলছে। দুই এক দিনের মধ্যে মরদেহ ঢাকায় নিয়ে আসা হবে।


EmoticonEmoticon